কুতুবদিয়ায় অফিসেই থাকেন না আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মোছলেহ উদ্দিন

অফিস না করার অভিযোগ কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলা আনসার ভিডিপির কর্মকর্তা মোছলেহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে।
একজন ইউনিয়ন মহিলা দলনেত্রী দ্ধারা চলছে এই অফিসের সকল কার্যক্রম। যোগদানের পর থেকে মাসে এক থেকে দুই দিন অফিস করেন তিনি। সময় মতো অফিসে না থাকায় ব্যাহত হচ্ছে কার্যালয়ের কার্যক্রম। হয়রানির শিকার হচ্ছেন ভুক্তভোগীরা।

অনুসন্ধানে জানা যায়, যোগদানের পর থেকে মাসে দুই একবার এসে উপজেলা সমন্বয় সভায় হাজিরা দিয়েই দায়িত্ব শেষ করেন তিনি। সরকারি বন্ধের দিন ছাড়া নিয়মিত অফিস করার নির্দেশনা থাকলেও এই নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দীর্ঘদিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত এই কর্মকর্তা। কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকলেও নিয়মিত বেতন ভাতা উত্তোলন করেন তিনি।

নিয়মিত এই কর্মকর্তা অফিসে অনুপস্থিত থাকায় সেবা নিতে আসা অনেক আনসার সদস্যকে ফিরে যেতে হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা আনসার ভিডিপির এক সদস্য জানান, উপজেলা আনসার ভিডিপির কর্মকর্তা মোছলেহ উদ্দিন যোগদানের পর থেকে কুতুবদিয়ায় থাকেন না, নিয়মিত অফিসও করেন না। জাতীয় দিবস ও উপজেলা মাসিক সমন্বয় সভায় যোগদান করার জন্য অফিসে আসেন বলে তিনি জানান।

ঊর্ধতন কর্মকর্তাকে না জানিয়ে কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে। এমন খবর পেয়ে বুধবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সরেজমিন উপজেলা আনসার ভিডিপির কার্যালয়ে গিয়ে পাওয়া যায়নি এ কর্মকর্তাকে। অফিস খোলা থাকলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

পরে তাঁর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বুধবার সকালে কুতুবদিয়া থেকে অফিসিয়াল কাজে কক্সবাজার যাচ্ছেন বলে জানান।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) জর্জ মিত্র চাকমা বলেন, উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মোসলেহ উদ্দিন স্টেশন ত্যাগের বিষয়ে আমাকে কিছু জানায়নি।

এ বিষয়ে জানতে জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট অম্লান জ্যোতি নাগ’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, স্ত্রীর অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে দু’দিনের ছুটি নিয়েছিলেন কুতুবদিয়া উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মোসলেহ উদ্দিন। কিন্তু কখন ছুটি নিয়েছিলেন সেটা তিনি জানাতে পারেননি। তবে স্টেশনে নিয়মিত উপস্থিত না থাকার বিষয়টি তিনি দেখবেন বলে জানান।