বেপরোয়া কিশোর গ্যাং লিডার আইমনের সশস্ত্র হামলায় মাদ্রাসা ছাত্র আহত

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার উপকূলীয় উজানটিয়া ইউনিয়নের কিশোর গ্যাং লিডার তারাউল ইসলাম আইমন আবারও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এই কিশোর গ্যাং লিডারের সশস্ত্র হামলায় গুরুতর আহত মাদ্রাসা ছাত্র মামুনুর রশিদ হাসপাতালে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। গত ১২ আগষ্ট রাত ৯ টার দিকে পাওনা টাকা দাবী করায় ক্ষুদ্ধ হয়ে এ হামলা চালায় কিশোর গ্যাং।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সুত্রে জানা গেছে, উজানটিয়া ইউনিয়নের মালেক পাড়ার দিনমজুরের ছেলে তারাউল ইসলাম আইমন। পুলিশের খাতায়ও একজন অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত। বর্তমানে ওই এলাকায় বিপদগামী কিছু উঠতি বয়সী কিশোরদের সমন্বয়ে একটি অপরাধী গ্যাং তৈরী করেছে আইমন। তার নেতৃত্বে উপকূলীয় এলাকায় ইয়াবা ব্যবসা, চুরি, ছিনতাই সহ বড় ধরণের অপরাধ সংঘঠিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত, এমন অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

অভিযোগে আরও জানা যায়, গত ১২ আগষ্ট রাত ৯ টার সময় পাওনা টাকা দাবী করায় কিশোর গ্যাং লিডার তারাউল ইসলাম আইমন ক্ষুদ্ধ হয়ে মাদ্রাসা ছাত্র দিনমজুর মামুনুর রশিদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায়। এতে মামুনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত ছাড়াও মাথায় গুরুতর আহত করা হয়। আশংকাজনক অবস্থায় মামুনকে পেকুয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি পেকুয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, তারাউল ইসলাম আইমন একজন পেশাদার কিশোর গ্যাং লিডার। ইতোপুর্বে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ( সিএমপি) এর হালিশহর থানা হতে গত ১৫/৮/২০২১ ইং প্রেরিত বিসিআর (Bad character Roll) মূলে পেকুয়া থানা থেকে রিপোর্ট তলব করা হয়। পরবর্তীতে পেকুয়া থানা গত ১৫/৩/২২ ইং, স্বারক নং-৯৪৪ মূলে তদন্ত পূর্বক তারাউল ইসলাম আইমন একজন খারাপ ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক মর্মে রিপোর্ট প্রেরণ করেছেন। উপকূলীয় এলাকায় অপরাধ কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণের জন্য এই কিশোর গ্যাং লিডার তারাউল ইসলাম আইমনকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানান।

আরও পড়ুন