পশ্চিমবঙ্গে অ্যাডিনো ভাইরাসের নতুন এক প্রজাতি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে অ্যাডিনো ভাইরাসের নতুন এক প্রজাতির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। নিউমোনিয়ার মতো তীব্র শ্বাসযন্ত্রের রোগ সৃষ্টি করে ভাইরাসটি। সম্প্রতি রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগকে চিঠি দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিজ্ঞানীরা বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করেছে।

 

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল কাউন্সিলের (আইসিএমআর) চিঠিতে বলা হয়, ২০২২ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে যত শিশু অ্যাডিনো ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে, তার বড় অংশ ছিল ‘বি৭/৩’ নামে নতুন এ প্রজাতির ভাইরাসে আক্রান্ত। নতুন এই ভাইরাসের মারণক্ষমতা অনেক বেশি। ফলে অ্যাডিনো ভাইরাসে শিশু মৃত্যুর ঘটনা অনেক বেশি।

 

আইসিএমআর বলছে, পশ্চিমবঙ্গে আক্রান্ত শিশুদের কফ পরীক্ষা করে এই প্রজাতির ভাইরাসের দেখা মিলেছে। কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে সব মিলিয়ে ৩ হাজার ১১৫ জনের কফের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল, তার মধ্যে ১ হাজার ২৫৭ জনের শরীরে অ্যাডিনো ভাইরাস পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৪০ জনের দেহে মিলেছে নতুন প্রজাতির ভাইরাস। যাদের শরীরে এই ভাইরাস পাওয়া গেছিল, তাদের অনেকেরই মৃত্যু হয়েছে।

চিকিৎসক সাত্যকি হালদার জানায়, গত বছর অ্যাডিনো ভাইরাসের প্রভাব ভালোই বোঝা গেছে। বহু শিশু এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। অনেকের মৃত্যু হয়েছে। নতুন যে প্রজাতির কথা বলা হচ্ছে, তা অত্যন্ত মারাত্মক। ফলে এখন থেকেই বিষয়টি নিয়ে সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

 

ভারতে এর পূর্বে কখনো ‘বি৭/৩’ প্রজাতির ভাইরাস খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর্জেন্টিনা ও পর্তুগালে অ্যাডিনো ভাইরাসের এ প্রজাতি দেখা গিয়েছিল।

আরও পড়ুন