জাপানে ৭.৬ মাত্রার ভুমিকম্প, রাশিয়া ও কোরিয়াতেও সুনামি সতর্কতা জারি

বছরের ১ম দিন জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়েছে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭.৬। এপিসেন্টার থেকে ৩০০ কি.মি. পর্যন্ত সুনামির ঢেউআছড়ে পরতে পারে বলে ধারনা বিশেষঙ্গদের। জাপানের পাশাপাশি রাশিয়া এবং কোরিয়াতেও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সোমবার (১ জানুয়ারি) জাপানে এ ভূ-কম্পন অনুভুত হয়। ফলে সুনামি সতর্কতা দেয়া হয়েছে দেশটিতে। উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদেরকে অবিলম্বে উঁচু স্থানে সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

এরই মধ্যে ইশিকাওয়া উপকূলীয় অঞ্চলে ১ মিটারের বেশি উচ্চতার সুনামির ঢেউ আঘাত করেছে। তবে কর্তৃপক্ষ পূর্বাভাস দিয়েছিল ৫ মিটার উঁচু সুনামির।

জাপানের সরকারি সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, জোরাল কম্পন অনুভূত হয়েছে রাজধানী শহর টোকিওতেও। কান্টো এলাকাতেও প্রবল কম্পন অনুভূত হয়। একাধিক স্থানে হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদিও সরকারিভাবে এখনও আহত বা মৃতের সংখ্যা সম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি।

জাপানের আবহাওয়া বিভাগের তরফে সতর্কতা জারি করা হয়েছে, পশ্চিম প্রান্তের সমুদ্র উপকূলবর্তী শহরগুলিতে সুনামি আছড়ে পড়তে পারে। ইশিকাওয়া, নিগাতা এবং তোয়ামাতে অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

জাপানের কেন্দ্রীয় সচিব হায়াশি দেশের মানুষকে নিরাপদ স্থানে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

এদিকে নিউক্লিয়ার রেগুলেশন অথরিটি জানায়, ইশিকাওয়াতে জাপানের শিখা নিউক্লিয়ার প্ল্যান্টের কোনও ক্ষতি হয়নি।

ইতিমধ্যেই প্রশাসন একাধিক বড় রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। ওয়াজিমা, ইশিকাওয়া শহরে রাস্তায় ধসে গিয়েছে বহু জায়গায়। ভূমিকম্পের এপিসেন্টার থেকে তিনশো কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত সুনামির ঢেউ আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

হকুরিকু ইলেকট্রিক পাওয়া কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে জাপানের প্রায় ৩৬ হাজারেরও বেশি বাড়িতে কোনও বিদ্যুৎ পরিষেবা নেই।

আরও পড়ুন